বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০৪:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

লিবিয়ার দেরনা শহরে মৃতের সংখ্যা ৬ হাজার ছাড়াল

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • খবর আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৪৩ এই পর্যন্ত দেখেছেন

লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় দেরনা শহর ও এর আশপাশের এলাকা প্লাবিত করা ভয়াবহ আকস্মিক বন্যা ও জলোচ্ছ্বাসে মৃতের সংখ্যা ৬ হাজার ছাড়িয়েছে।

রাজধানী ত্রিপোলির ঐক্যমত্যের সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আন্ডারসেক্রেটারি সাদেদ্দিন আবুল ওয়াকিল এ তথ্য জানিয়েছেন।খবর আল-আরাবিয়ার।

যদিও দেরনা শহরটি লিবিয়ার পূর্বাঞ্চল নিয়ন্ত্রণকারী লিবিয়ান ন্যাশনাল আর্মি বা এলএনএ সরকারের অধীনে রয়েছে।

এদিকে দেরনার মেয়র আব্দুলমেনাম আল-গাইসি সৌদি আরবের আল-আরাবিয়া টিভিকে বলেছেন, শহরের যতগুলো এলাকা বন্যায় বিধ্বস্ত হয়েছে তার ভিত্তিতে ধারনা করা হচ্ছে, ১৮ থেকে ২০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

গত রোববার ভূমধ্যসাগরে সৃষ্ট প্রবল ঘূর্ণিঝড় ড্যানিয়েলের প্রভাবে প্রবল বৃষ্টিপাতের ফলে দেরনা শহরে আকস্মিক বন্যা ও জলোচ্ছ্বাস দেখা দেয়। গভীর রাতে বেশিরভাগ মানুষ যখন ঘুমিয়ে ছিল তখন কয়েকতলা ভবন সমান উঁচু পানির ঢেউ দেরনা শহর ও এর দু’টি রক্ষাবাঁধকে ভাসিয়ে নিয়ে যায়।

পানির তোড়ে ভূমধ্যসাগরে ভেসে যায় অন্তত ২০ হাজার মানুষ। যতই সময় যাচ্ছে সাগর থেকে তত বেশি লাশ উপকূলের দিকে ভেসে আসছে। শহরের আকাশ-বাতাস পঁচা লাশের গন্ধে ভারী হয়ে উঠেছে।

এখন পর্যন্ত অন্তত ১০ হাজার মানুষ নিখোঁজ রয়েছে যাদের কারো বেঁচে থাকার সম্ভাবনা কম। জাতিসংঘের অভিভাসন বিষয়ক সংস্থা বলেছে, বন্যার ফলে ৩০ হাজারের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে।

লিবিয়ায় ২০১১ সালে ন্যাটো-সমর্থিত গণঅভ্যুত্থানের জের ধরে তৎকালীন মুয়াম্মার গাদ্দাফি সরকারের পতন ঘটে। এরপর বেশ কয়েক বছর ধরে দেশটির পূর্ব ও পশ্চিমাঞ্চল নিয়ন্ত্রণকারীদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ চলে আসছে।

বর্তমানে রাজধানী ত্রিপোলি-ভিত্তিক দেশটির পশ্চিমাঞ্চল নিয়ন্ত্রণকারী সরকারকে আন্তর্জাতিক সমাজ স্বীকৃতি দিলেও পূর্বাঞ্চল নিয়ন্ত্রণকারী এনএলএ সরকার আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত নয়।

নিউজ /এমএসএম

দয়া করে খবরটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই ক্যাটাগরিতে আরো যেসব খবর রয়েছে
All rights reserved © UKBDTV.COM
       
themesba-lates1749691102