বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৫:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ছাত্র আন্দোলনের নামে নাশকতাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা—-ব্যারিস্টার মো. হারুন অর রশিদ দেশকে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করতেই বিএনপি-জামায়াতের কর্মীরা কেন্দ্রীয় ডাটা সেন্টার জ্বালিয়ে দিয়েছে—-তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী প্রেসিডেন্ট প্রার্থীতা থেকে সরে দাঁড়ালেন বাইডেন দেশব্যাপী নাশকতায় বিএনপি-জামায়াত জড়িত আরো তিন দিনের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত ফিফা র‍্যাংকিংয়ে সেরা আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল কোথায়? শিক্ষার্থীদের লাশ বানিয়ে ফায়দা লোটার অপচেষ্টায় বিএনপি-জামায়াত: কাদের পরিস্থিতি বুঝে মোবাইল ইন্টারনেট বন্ধ করা হয়েছে : পলক কোটা আন্দোলনকারীদের প্রস্তাব গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী: আইনমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনার জন্য দুই মন্ত্রীকে দায়িত্ব দিলেন প্রধানমন্ত্রী

ইউক্রেনের হামলায় রুশ বোমারু বিমান ধ্বংস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • খবর আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০২৩
  • ৮৬ এই পর্যন্ত দেখেছেন

ইউক্রেনের হামলায় বিমান ঘাঁটিতে থাকা একটি রুশ সুপারসনিক বোমারু বিমান ধ্বংস হয়ে গেছে। মূলত রাশিয়ার ভেতরে ঢুকে ইউক্রেনীয় ড্রোন এই হামলা চালায়। মস্কো বলেছে, ড্রোন হামলায় একটি বিমান ‘ক্ষতির শিকার’ হয়েছে। তবে ইউক্রেন এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেনি।

মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউক্রেনের ড্রোন হামলায় রাশিয়ার দূরপাল্লার একটি বোমারু বিমান ধ্বংস হয়ে গেছে। হামলায় ধ্বংস হয়ে যাওয়া ওই বিমানটি টুপোলেভ টু-২২ মডেলের একটি সুপারসনিক বোমারু বিমান। এই ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কিছু ছবি ছড়িয়ে পড়েছে। এসব ছবিতে সেন্ট পিটার্সবার্গের দক্ষিণে অবস্থিত সোলটসি-২ বিমানঘাঁটিতে একটি টুপোলেভ টু-২২ বিমানে আগুন জ্বলতে দেখা গেছে।

অন্যদিকে মস্কোর প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, শনিবার মস্কোর সময় প্রায় ১০টার দিকে ‘কপ্টার-টাইপ ইউএভি’-র মাধ্যমে হামলা চালানো হয়েছে।

বিবৃতিতে তারা হামলার শিকার স্থানকে ‘নভগোরড অঞ্চলের একটি সামরিক বিমানঘাঁটি’ হিসাবে উল্লেখ করেছে। মূলত সেখানেই সোলটসি-২ বিমানঘাঁটিটি অবস্থিত। মন্ত্রণালয় বলেছে, ‘হামলায় একটি বিমান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে; সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের ফলে কোনও হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। হামলার ফলে এয়ারফিল্ড পার্কিং লটে যে আগুন লেগেছিল তা দ্রুত নিভিয়ে ফেলা হয়েছে বলেও বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মূলত যেসব বিমান শব্দের চেয়ে দ্রুত গতিতে উড়তে পারে তাদেরকে সুপারসনিক বিমান বলা হয়। টুপোলেভ টু-২২ সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রথম সুপারসনিক বিমান। ১৯৬২ সালে নির্মিত এই বিমান প্রত্যাশা অনুযায়ী তেমন সফলতা দেখাতে পারেনি। তবে চলমান যুদ্ধে ইউক্রেনের শহরগুলোতে বিমান হামলায় এই বিমানগুলো ব্যবহার করে আসছে রাশিয়ার সামরিক বাহিনী।

বিবিসি বলছে, ধ্বংস হওয়া রাশিয়ান টু-২২ বোমারু বিমানটি শব্দের দ্বিগুণ গতিতে উড়তে পারে এবং ইউক্রেনের শহরগুলোতে আক্রমণ করার জন্য এই বিমান ব্যাপকভাবে ব্যবহার করছে রাশিয়া। ধ্বংস হওয়া রাশিয়ার টিইউ-২২ সুপারসনিক বিমানটি মূলত স্নায়ু যুদ্ধকালীন বোমারু বিমান। ইউক্রেন ছাড়াও এই বিমানগুলো চেচনিয়া, জর্জিয়া এবং সিরিয়ার যুদ্ধেও ব্যবহার করা হয়েছে।

নিউজ /এমএসএম

দয়া করে খবরটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই ক্যাটাগরিতে আরো যেসব খবর রয়েছে
All rights reserved © UKBDTV.COM
       
themesba-lates1749691102