বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০১:১৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সিলেটের ৩ উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন যারা দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করার জন্য বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম এর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক প্রকাশ নবীগঞ্জ উপজেলার দিনারপুরে ইয়াবা ও গাঁজাসহ ২জন গ্রেপ্তার হুয়াওয়ে আইসিটি কম্পিটিশনে অংশ নিতে চীনে বাংলাদেশ দল ছাতক উপজেলা নির্বাচন থেকে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী শহিদুজ্জামান এর প্রার্থীতা প্রত্যাহার কৃষি উৎপাদন বাড়াতে অস্ট্রেলিয়ার সহযোগিতা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইরানের প্রেসিডেন্ট রাইসির মৃত্যুতে বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ফারুক আলম টবি বেসরকারিভাবে নির্বাচিত রাণীশংকৈল উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে আহম্মদ হোসেন বিপ্লব বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগ

১০০ কোটি মানুষের কর্মসংস্থানের লক্ষ্য

দেওয়ান রফিকুল হায়দার
  • খবর আপডেট সময় : বুধবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৯০ এই পর্যন্ত দেখেছেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের কল্যানে একের পর এক কর্মসূচী গ্রহণ করে চলেছেন। একটি গণতান্ত্রিক সরকারের প্রধান হিসেবে দেশের জনগণের প্রতি তিনি তাঁর দায়িত¦ পালনে নিরলস ভাবে কাজ করেই যাচ্ছেন। তাঁর অক্লান্ত পরিশ্রম এবং জনগণের ভালোবাসাই তাঁকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করছে এ কথা নির্দ্ধিধায় সবাই স্বীকার করবেন।

ই্উকেবিডি.কম টিভি’র এক খবরে প্রকাশ, গত ২০ নভেম্বর সকালে গণভবন থেকে দেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে ভার্চুয়ালি ইপিজেডগুলোতে শিল্প প্রতিষ্ঠানের উদ্বোধন করেন্ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন ইপিজেড-এ ২৯টি শিল্প ইউনিটের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন যে গুলো এখন পর্য্যন্ত ৬১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে এবং আরও ১,৯২২.৩৯ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। বিএসএমএসএন, জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চল, শ্রীহট্ট ইজেড ও সাবরাং ট্যুরিজম পার্কের প্রশাসনিক ভবন এ সময় উদ্বোধন করা হয়। এছাড়াও তিনি আনুষ্ঠানিক ভাবে বিএসএমএসএন-এ ২০ কিলোমিটার শেখ হাসিনা স্মরণী, ২৩০ কেভিএ গ্রিডলাইন এবং সাবস্টেশন সহ প্রতিদিন ৫০ মিলিয়ন লিটার (এমএলডি) ক্ষমতা সম্পন্ন একটি পানি শোধনাগারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। ম্যাকডোনাল্ড স্টিল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড এগুলোর মধ্যে একটি, প্রিফেব্রিকেটেড স্ট্রাকচারাল স্টিল তৈরি করে যা ইস্পাত সেতু উচুঁ ভবন, কারখানা এবং পাওয়ার প্ল্যান্টে ব্যবহৃত হয়।

এছাড়াও পিএইসি পাইল প্রস্তুতকারক সমুদা কনস্ট্রাকশন লিমিটেড ৮.২ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করে ৪ একর জমিতে তাদের কারখানা নির্মাণ করেছে। আগামী ডিসেম্বর মাসে জাপানিজ ইকোনমিক জোন উদ্বোধন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গেছে।

শিল্প, কর্মসংস্থান, উৎপাদন ও রপ্তানী বৃদ্ধি বহুমুখীকরণের মাধ্যমে দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়নকে উৎসাহিত করার লক্ষ্যে পশ্চাদপদ ও অনুন্নত অঞ্চল সহ বাংলাদেশের সকল সম্ভাব্য এলাকায় অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য বেজা’র।

পরিকল্পিত ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চলের মধ্যে সরকার ৯৭টি অর্থনৈতিক অঞ্চল অনুমোদন করেছে, যার মধ্যে ২৮টি বর্তমানে উন্নয়নাধীন রয়েছে। এখন পর্যন্ত ১২টি ব্যক্তি মালিকানাধীন অর্থনৈতিক অঞ্চল পরিচালনার লাইসেন্স পেয়েছে এবং এই অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে প্রায় ৪ বিলিয়ন ডলার বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করা হয়েছে।

সরকার আশা প্রকাশ করছে, প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে ১ কোটি মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে এই অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে বার্ষিক ৪০ বিলিয়ন ডলার মূল্যের পণ্য উৎপাদন এবং রপ্তানী করবে। উক্ত সংবাদের একাংশ এখানে আমি তুলে ধরেছি মাত্র।

এখানেই শেষ নয়, বাংলাদেশে একটি পেট্রোলিয়াম শোধনাগার স্থাপনের প্রয়োজনীতা দীর্ঘ দিন ধরেই সরকার উপলব্ধি করে আসছিলো এবং বর্তমানে কুয়েতের রাষ্ট্রদূতের সাথে আলোচনার মাধ্যমে তা অতি শীগ্রই বাস্তবায়িত হবে বলে আশা প্রকাশ করা হচ্ছে। দেশে একটি পেট্রোলিয়াম শোধনাগার স্থাপন করা হলে ক্রুড ওয়েল থেকে যে সব প্রোডাক্ট যেভাবে শোধনাগার থেকে বের হয়ে আসবে তার একটি নমুনা নীচে দেয়া
প্রথমে একটি হলো।

কনটেইনারে ক্রড ওয়েল নেয়া হয়। সেই ক্রুড ওয়েলকে অন্য একটি ফারনেসে নিয়ে সেখানে হিট বা উত্তাপ দিয়ে সেই উত্তাপকৃত ক্রুড ওয়েল চলে যায় ক্রড ডিষ্টিলেশন ্ইউনিটে। এই ইউনিট থেকে বিভিন্ন উত্তাপে প্রাথমিক পর্য্যায়ে যেসব প্রোডাক্ট বের হয়ে আসে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে, প্রপেইন, বিউটেইন এবং লাইটার হাইড্রকার্বন (৯০ ডিগ্রি ফারেনহেইট), লাইট ভার্জিন নাফতা (ল’অকটেন) (৯০-২২০ ডিগ্রি ফারেনহেইট), হেভি ভর্জিন নাফথা (২২০ ডিগ্রি-৩১৫ ডিগ্রি উত্তাপ), কেরোসিন (৩১৫ ডিগ্রি-৪৫০ ডিগ্রি ফারানেহেইট), ডিজেল/লাইট গ্যাস ওয়েল (৪৫০ ডিগ্রি-৬৫০ ডিগ্রি উত্তাপ), এরপর অতিরিক্ত ক্রুডওয়েলগুলো চলে যাবে ভেক্যুয়াম ডিস্টিলেশন ইউনিটে। এখান থেকে তৈরি হবে হেভি গ্যাস ওয়েল (৬৫০ ডিগ্রি-৮০০ ডিগ্রি ফারেনহেইট) এবং রেসিডুয়েল ফুয়েল ওয়েল/আসফাল্ট (৮০০ ডিগ্রি ফারেনহেইট)। এটি হচ্ছে বেসিট রিফাইনিং কনসেপ্ট।

ক্রুড ডিস্টিলেশন ্ইউনিট থেকে ফাইনাল প্রোডাক্ট বের হবে ধারাবাহিক ভাবে উপরে দেয়া হিট বা উত্তাপ থেকে বেরিয়ে আসবে রিফাইনারি ফুয়েল গ্যাস, প্রপেইন, এনজিএল’স, গ্যাসোলিন, গ্যাসোলিন, জেট ফুয়েল, পেট্রোক্যামিক্যালস, কেরোসিন, জেট ফুয়েল, ডিজেল, ফুয়েল অয়েল, গ্যাসলিন, ডিজেল, ফুয়েল অয়েল, গ্যাসলাইন, ডিজেল, ফুয়েল ওয়েল এবং লুব স্টকস।

সম্প্রতি বাংলাদেশে নিযুক্ত কুয়েতের রাষ্ট্রদূত ফয়সাল মুতলাক আলাদওয়ানি গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশে পেট্রোলিয়াম শোধনাগার স্থাপনের প্রস্তাব করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কুয়েত রাষ্ট্রদূতের দেয়া ’বাংলাদেশে পেট্রোলিয়াম শোধনাগার’ নির্মাণে কুয়েতের প্রস্তাব বাস্তবায়নে কাজ শুরু করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। এই শোধনাগার নির্মিত হলে উপরোল্লিখিত প্রডাক্টগুলো নিজের দেশে তৈরি করতে পারলে অন্যান্য দেশ থেকে আর আমদানী করতে হবেনা যার ফলে প্রতি বছর প্রচুর টাকার সাশ্রয় হবে।

প্রধানমন্ত্রীর এই মহতী উদ্যোগগুলোকে স্বাগত জানিয়ে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বাংলাদেশী প্রবাসীরা আনন্দে উৎফুল্ল হয়ে সরকারকে এ কাজগুলো বাস্তায়নের জন্য সব ধরণের সাহায্য এবং সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। ”অনেকের সাথে এ ব্যাপারে আলাপ কালে তারা বলেন, আগামী নির্বাচনে জয়ী হয়ে আরও ৫ বছর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে একদিকে যেমন বাংলাদেশ উন্নত বিশ্বের কাতারে চলে যাবে, অন্যদিকে দেশের মানুষ দারিদ্রতার অভিশাপ থেকে মুক্তি পাবে। সুতরাং দেশের উন্নয়নের স্বার্থেই আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে হবে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তারা বলেন, যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় থেকেই বাংলাদেশের বিরোধীতা করে আসছে, বাংলাদেশের জনগণ তাদের ভালো করেই চেনে। আর এ কারণেই তারা ভোট বানচালের চেষ্টায় আত্মনিয়োগ করেছে। তারা তাও জানে যে, তাদের নেতা তারেক রহমানের আয়ের বৃহত্তর উৎসই হচ্ছে মনোনয়ন বাণিজ্য। কোটি কোটি টাকার এ বাণিজ্য যে তিনি হাত ছাড়া করবেন, তা বাংলাদেশের জনগণ বিশ্বাস করে না।

বিএনপি-জামায়াত ভালো করেই জানে, নির্বাচনে অংশ গ্রহণ ছাড়া ক্ষমতায় যাওয়া সম্ভব হবে না। তাদের চিন্তাধারা হচ্ছে, দেশে যদি অরাজকতা সৃষ্টি করে এবং সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা অপপ্রচার করে দেশের মানুষকে ক্ষেপিয়ে তুলতে পারে, তাহলে হয়তো নির্বাচন বানচাল করা সম্ভব হবে। কিন্তু তারা যে বোকার স্বর্গে বাস করছে, সে বুঝটুকুও তাদের মধ্যে নেই। তারা আরও বলেন, তাদের বিশ্বাস, বিএনপি শেষ পর্য্যন্ত নির্বাচনে যাবে এবং যে কোন একটি অজুহাত তুলে নির্বাচন থেকে বেরিয়ে আসবে। নির্বাচনে যোগদান না করলে তাদের দলের অস্তিত্ব বিলীন হয়ে যাবে, এটাই সত্য।

আওয়ামী লীগের গত তিন টার্মের শাসনামলে দেশের উন্নয়নে যে অগ্রগতি সাধিত হয়েছে এবং আগামী বছরগুলোতে যে সকল প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে তা বাস্তবায়িত করতে হলে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সুযোগ দিতে হবে। দেশবাসিকে খেয়াল রাখতে হবে যে, বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধী বিএনপি-জামায়াত ও তার অঙ্গ সংগঠনগুলো যেন কোন ভাবেই বাংলাদেশের অগ্রগতি এবং স্বাধীনতাকে হুমকির মুখে না ফেলে। এদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ভাবে রুখে দাঁড়াতে হবে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ সহ দলমত নির্বিশেষে স্বাধীনতার পক্ষের সব রাজনৈতিক দলগুলোকে।

লেখকঃ দেওয়ান রফিকুল হায়দার (ফয়ছল), কলামিষ্ট, সিনিয়র সাংবাদিক ও সদস্য লন্ডন বাংলা প্রেসক্নাব

দয়া করে খবরটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই ক্যাটাগরিতে আরো যেসব খবর রয়েছে
All rights reserved © UKBDTV.COM
       
themesba-lates1749691102